রোববার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ , ৮ আশ্বিন ১৪৩০

modhura
Aporup Bangla

একগুচ্ছ কবিতা। কুরজাহান আজমেরী কল্পনা

শিল্প-সাহিত্য

কুরজাহান আজমেরী কল্পনা

প্রকাশিত: ০৯:৩৫, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

সর্বশেষ

একগুচ্ছ কবিতা। কুরজাহান আজমেরী কল্পনা

অলংকরণ : জীবন শাহ

১.
তারপর তোমার আমার বেগতিক পথে একমাত্র সাক্ষী   বলতে পারি নিঃস্তব্দতা,
তুমি একের পর এক পাতা উল্টিয়ে খবর পড়ছো
আর আমার ভিজে বাতাসের চুল শুকানো..
বারান্দায় কিছু সুগন্ধি ফুল রাখা 
যা বহুকাল পানির অভাবে শুকিয়ে যাচ্ছে রোজ 

একবার গভীর রাতে তারার গল্পে তুমি আমায় লিখতে বলেছিলে রক্তমাখা পল্লীর কথা।
প্রেমিকার সাহসী মন্ত্র বুঝি কলম জানে, 
কয়েক নিষ্পাপ কাজল কালো চোখের চাহুনি ,
হাজারো কষ্ট লুকিয়ে কপালে টিপ আর লিপস্টিক লাগালেই বুঝি সুুখি বলা যায়!
স্বপ্নেরা রঙিন হয় অনাহারে  অনাদরে
এতিম শিশুর মতোন। 
দেয়াল ঘড়িটা আজ আর বিপ্লব করে না
কলমে নগ্নতা, ভিজে চুলের অগোছালো কবিতার রোশনাই, শরীর মাপে রিখটার স্কেলে।
উন্নয়নের গতিবেগ, মাটির তলার দ্রুত গতি ধুলিসাৎ করেছে স্বপ্নের বনেদিয়ানা।

তোমাদের প্রেম, ভালোবাসা, স্টেশন চত্ত্বর, ফুটপাথ থেকে রাজপথ সব কিছুর অস্তিত্ব এক টাকার কয়েনের ঝনাৎ শব্দের মতোই নিমিষেই অস্তিত্বহীন।


২.
আমাদের মধ্যবিত্ত ভালোবাসা

এই একটা সময়ে এসে 
আমাদের গল্পটা আটকে বা থেমে যায়।
তুমি গণিতের শিক্ষক আর আমি অংকে ভীষণ কাঁচা। সেখান থেকে শুরু হয় দায়িত্ব-কর্তব্যের হিসাব। 
সবটা আবার শুরু থেকে শুরু করতে হবে।
ঘরের পুরনো দেয়ালের রঙটা 
সবার আগে বদলাতে হবে।
বইয়ের তাকটাকে নতুন কিছু বই দিয়ে
সাজিয়ে ফেলতে হবে।
টানটান করে চাদর পেতে দিতে হবে বিছানায়,
যাতে তোমার শেষ ভালোবাসার
কোনও ছাপ না লেগে থাকে।
বন্ধু-বান্ধব সবাইকে জানিয়ে দিতে হবে,
তবে কি জানিয়ে দিতে হবে সেসব আমারও জানা 
নেই-
জানার মধ্যে এটুকুই আড়ালে রাখার বিষয় প্রেম হতে পারে বিচ্ছেদ নয়।
সবকিছু আবার নতুন করে শুরু করতে হবে।
পঁচিশ শ' নব্বই দিনের স্মৃতি নিয়ে গল্প লিখতে হবে।
নিজেকে রোজ গুছিয়ে রাখতে হবে। 

সময়, সম্পর্ক, ভালোবাসা আর মধ্যবিত্তের ভারি ব্যাগ কিছু সময়ের জন্য দূরে সরিয়ে রেখে। 
স্বস্তির নিঃশ্বাস নিয়ে,
বলতে হবে ভালো আছি, খুব ভালো আছি। 
নৈঃশব্দের ভেতর খুঁজে বের করার বৃথা চেষ্টা করতে হবে ভালো থাকা।...


৩.
এক বনবাসী কাক

একটা শীতার্ত সন্ধ্যায় একা দাঁড়কাক 
কত বসন্তই তো না দেখা থেকে যায়...
অলস শীতের দুপুরে রোদ খেলা পড়ে থাকে 
দু'-চারটে ক্ষতের দাগ আর বাকি থেকে যাওয়া গল্প...
বড় সুখে শুনতে থাকা গাঙের ঢেউ
এবং তোমার বদলাতে থাকা ঠিকানায় 
চিঠি পাঠানোটা আমার আদর্শের বাইরে...
যেমন বাঁকা চোখে কাজল মানায় না!...

তবু দেখো এত কিছুর পরেও আমাতে লুকিয়ে থাকা

এক কাঙ্গালীনি মন তোমাকে চিরকাল দূর থেকে চেয়েছে..
আসলে কাছে যাওয়ার অনুমতি 
সব অনুভূতির থাকতে নেই
তুমি ধূসর কালো অবাদ্ধ মেঘের দল, 
সূর্যকেও লুকিয়ে রেখে দিতে পারো..

আমি  এক বনবাসী কাক, 
মায়ার আদলকেও ফিরিয়ে দিতে শিখিনি...

হা. শা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়