একটি স্প্যান বসলেই বাস্তবে রূপ নেবে পদ্মা সেতু | দেশজুড়ে | Aporup Bangla | বাংলার প্রতিধ্বনি
ঢাকা | বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮
দেশজুড়ে

একটি স্প্যান বসলেই বাস্তবে রূপ নেবে পদ্মা সেতু

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১১:৩৬ আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১২:৪৩

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি | প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১১:৩৬


ফাইল ফটো

শীতের সকালের কুয়াশার মধ্যেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সর্বশেষে ৪১তম স্প্যান বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। ক্রেন থেকে স্প্যানটি পিলারে তোলার জন্য আগের কাজ শুরু সেরে নেয়ার পর পিলারে তুলে দেয়া হবে। 

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) মাওয়া অংশের মাঝ নদীতে স্প্যানটি ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপরে বসানো হবে। এর মাধ্যমে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে।

স্থানীয়রা বলছেন, পদ্মা সেতু  এখন বাস্তবে রূপ পাচ্ছে। এটি ছিল মানুষের স্বপ্নে।  পদ্মার বুকে তাকালে এখন দেখা যায় এক সময়ের স্বপ্নের সেতু এখন দৃষ্টিসীমায় দিগন্তজুড়ে দাঁড়িয়ে। মাঝ পদ্মা থেকে দেখা যাচ্ছে পিলারের দীর্ঘ সারি। জোড়া লেগেছে ৪০টি স্প্যান বাকি শেষ স্প্যানটি জোড়া লাগার অপেক্ষা মাত্র।

প্রকল্প এলাকায় স্প্যান তোলার প্রস্তুতির সময় দেখা যায়, ৪১তম স্প্যানটিকে সাজানো হয়েছে। স্প্যানের ওপর চীন ও বাংলাদেশের পতাকা লাগানো হয়েছে। একই সাথে চীনা এবং বাংলা ভাষায় লেখা হয়েছে ‘বহু বছরের প্রচেষ্টায় দেশি ও বিদেশি শ্রমশক্তির মাধ্যমে স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের পথে। সেতুর ৪১টি ইস্পাতের তৈরি স্প্যান বাংলার উত্তর এবং দক্ষিণ অঞ্চলকে সংযুক্তির মাধ্যমে চীন এবং বাংলাদেশের বন্ধনকে অটুট রাখবে’ যা স্প্যানের ওপরে লাল ব্যানারের লেখা লক্ষ্য করা গেছে।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। তারপর স্বপ্নের সেতুর প্রথম স্প্যান বসানো হয়েছিল ২০১৭ সালে।

উল্লেখ্য, মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top