ঢাকায় অঘোষিত কারফিউর মতো অবস্থা | রাজনীতি | Aporup Bangla | বাংলার প্রতিধ্বনি
ঢাকা | বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮
রাজনীতি
জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেওয়ার পর মির্জা ফখরুল

ঢাকায় অঘোষিত কারফিউর মতো অবস্থা

অপরূপ বাংলা প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২১ ১৭:২০ আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৫:৪০

অপরূপ বাংলা প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২১ ১৭:২০


জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেওয়ার পর মির্জা ফখরুল

ঢাকায় অঘোষিত কারফিউর মতো অবস্থা জারি করে সরকার জনগণকে বাদ দিয়েই স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে শেরে বাংলা নগরে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেওয়ার পর তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকের এ দিনে বাংলাদেশের যে অবস্থা বিশেষ করে ঢাকা শহরের- এটা আমাদের কারো কাছে প্রত্যাশিত নয়। আমরা সারা শহর দেখলাম একটা অঘোষিত কারফিউর মতো রয়েছে এবং জনগণের চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জনগণকে বাদ দিয়েই আজকে এই দিনটি সরকার উদযাপন করছে।

পুলিশের অনুমতি নিয়ে দলের মহাসচিবসহ স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম শেরে বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে আসেন এবং ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা আমাদের সুবর্ণজয়ন্তী পালন করার যে কমিটি ছিল সেই কমিটির পক্ষ থেকে আজকে আমাদের অনেক বিস্তারিত কর্মসূচি ছিল। কিন্তু সেই কর্মসূচি আমরা পালন করতে পারছি না। আমরা আজকে জাতীয় স্মৃতিসৌধে যেতে পারিনি। জেলার নেতারা সেখানে প্রতীকীভাবে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।
 
তিনি বলেন, আমাদের রাজনৈতিক অর্জন হচ্ছে এটা যে, আজকে ৫০ বছর পরেও আমরা স্বাধীন নই। আমরা একথা বার বার বলছি যে, এই আওয়ামী লীগ সরকার বেআইনিভাবে জোর করে ক্ষমতা দখল করে আমাদের জনগণের অধিকারগুলো কেড়ে নিয়েছে, সাংবিধানিক অধিকারগুলো কেড়ে নিয়েছে, গণতান্ত্রিক অধিকারগুলো কেড়ে নিয়েছে। এজন্য এদেশের মানুষকে আমরা স্বাধীন বলতে পারি না। বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিপন্ন হয়েছে, আমরা শৃংখলিত হয়েছি।

করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকার উদাসীন উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, আপনারা জানেন, করোনা সংক্রামণের কারণে আমাদের সমাবেশসহ বাইরের কর্মসূচিগুলো বাতিল করেছি। আজকে ভয়ংকরভাবে করোনা আগ্রাসী ভূমিকা নিয়ে বাংলাদেশে আক্রমণ শুরু করেছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সরকার সেদিকে উদাসীনতা দেখাচ্ছে। তার মূল কারণ হচ্ছে তারা বিদেশি মেহমানদের নিয়ে ব্যস্ত আছে। দেশের মানুষের কি হবে কি হবে না সে বিষয়ে তাদের খুব বেশি আগ্রহ আমরা দেখছি না।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top