কোণঠাসা বাইডেন, ঈদ দাওয়াত বর্জন মুসলিম নেতাদের | সারাবিশ্ব | Aporup Bangla | বাংলার প্রতিধ্বনি
ঢাকা | বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮
সারাবিশ্ব

কোণঠাসা বাইডেন, ঈদ দাওয়াত বর্জন মুসলিম নেতাদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২১ ১০:১০ আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০১:৫৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | প্রকাশিত: ১৭ মে ২০২১ ১০:১০


ছবি : সংগৃহীত

ফিলিস্তিনিদের ওপর ৭ দিন ধরে হত্যা ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে দখলদার ইসরায়েল। এতে এরই মধ্যে ৫৫ শিশুসহ ১৮৮ ফিলিস্তিনি প্রাণ হারিয়েছেন। ইসরায়েলের এ বর্বরকাণ্ডের প্রতি সমর্থন দিয়ে নিজ দলেই তোপের মুখে পড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

অপরদিকে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বাইডেন। অনুষ্ঠানে মুসলমানদের অধিকার সংগঠনগুলোর নেতৃস্থানীয়দের যোগ দেওয়ার কথা ছিল। তবে ফিলিস্তিন ইস্যুতে মার্কিন সরকারের অবস্থান ও ভূমিকার প্রতিবাদ হিসেবে সংগঠনগুলো ওই অনুষ্ঠান বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ইসরায়েলের প্রতি সমর্থন দিয়ে জো বাইডেন বলেছেন, ‘ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে’। কিন্তু গত এক সপ্তাহে গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বিমান, ক্ষেপণাস্ত্র ও কামান হামলায় ১৮৮ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৫৫ শিশু রয়েছে। আহত হয়েছেন এক হাজারের বেশি মানুষ। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো দুঃখ প্রকাশ করেননি জো বাইডেন। উল্টো ফিলিস্তিন থেকে হামলা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইসরাইলের হামলাকে তাদের ‘আত্মরক্ষার অধিকার’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। একই সঙ্গে তাদের এই অধিকারের প্রতি ওয়াশিংটনের সমর্থন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন। তবে ফিলিস্তিনের সঙ্গে ইসরাইলের টানা সংঘাতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের অবস্থান নিয়ে নিজ দলের মধ্যেই তোপের মুখে পড়েছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরার খবরে জানানো হয়, বাইডেনের ভার্চ্যুয়াল ওই অনুষ্ঠান হওয়ার কথা রোববার। তবে মুসলিম সংগঠনগুলো বলেছে, ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় বাইডেন প্রশাসন ‘সমর্থন ও সহযোগিতা দিচ্ছে’। এই অভিযোগে সংগঠনগুলো ওই অনুষ্ঠান বর্জন করেছে।

আমেরিকান মুসলিমস ফর প্যালেস্টাইন নামে একটি সংগঠনও বাইডেন প্রশাসনের ঈদ উদযাপনের অনুষ্ঠান বর্জনের আহ্বান জানিয়েছে। সংগঠনটি বলেছে, ‘ফিলিস্তিনি জনগণের জীবনের বিনিময়ে হোয়াইট হাউসকে পবিত্র ঈদ উদযাপনের বিষয়টিকে রাজনৈতিক অভিলাষ হিসেবে ব্যবহার করতে দেব না আমরা। ’

জানা যায়, প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ইসরাইলের প্রতি এমন অবস্থানের কারণে তার দল ডেমোক্র্যাট পার্টির ভেতরে ক্ষোভের ও বিভক্তির তৈরি করেছে। বেশ কয়েকজন ডেমোক্র্যাট নেতা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মানবাধিকার রক্ষার প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তারা ইসরাইলের ওপর চাপ তৈরিতে কাজ করতে বাইডেনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ডেমোক্র্যাটরা সামাজিক ও জাতিগত ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনকে স্বাগত জানিয়েছে। উদারপন্থী ডেমোক্র্যাটরা চান অভ্যন্তরীণ নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পররাষ্ট্রনীতিতেও ন্যায়বিচারের বিষয়টিকে গুরুত্ব দেবে বাইডেন প্রশাসন।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top