তদন্ত হবে ইসরায়েলের অপরাধ | সারাবিশ্ব | Aporup Bangla | বাংলার প্রতিধ্বনি
ঢাকা | বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮
সারাবিশ্ব

তদন্ত হবে ইসরায়েলের অপরাধ

অপরূপবাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২১ ০৯:২৯ আপডেট: ২৮ মে ২০২১ ০৯:৩২

অপরূপবাংলা ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২১ ০৯:২৯


ছবি : সংগৃহীত

জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদ ইসরায়েল ও হামাসের সংঘাতের ঘটনার তদন্ত করবে। ১১ দিনের এই সংঘাত তদন্তের দাবি নিয়ে তোলা একটি প্রস্তাবের বিষয়ে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) ভোটাভুটি হয়। পরিষদের ফোরামের বেশির ভাগ সদস্য তদন্তের পক্ষে ভোট দেয়।

আল–জাজিরার প্রতিবেদন বলছে, জাতিসংঘের ফিলিস্তিনের প্রতিনিধি ইসরায়েল ও হামামের মধ্যে সংঘাতের তদন্তের জন্য ওই প্রস্তাব আনেন। পুরোদিন দিন প্রস্তাবটির ওপর অধিবেশন চলে। এরপর ভোট হয়। এতে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের ৪৭ সদস্যের ফোরামের মধ্যে ২৪টি দেশ পক্ষে এবং নয়টি দেশ বিপক্ষে ভোট দেয়। আর ১৪টি দেশ ভোটদানে বিরত থাকে।

ওই প্রস্তাবে ইসরায়েল–হামাস সংঘাত তদন্তের জন্য একটি স্থানীয় তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি জানানো হয়। এই কমিশন ইসরায়েল, গাজা, দখলকৃত পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেবে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, কাউন্সিলের উদ্বোধনী অধিবেশনে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাশেলেট বক্তব্য দেন। এ সময় তিনি বলেন, গাজায় ব্যাপক মাত্রায় হতাহতের ঘটনায় তিনি উদ্বিগ্ন। তিনি সতর্ক করেন, ইসরায়েল যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত করতে পারে। ইসরায়েলের দিকে হামাসের নির্বিচারে রকেট নিক্ষেপকে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মিশেল ব্যাশেলেট আরও বলেন, সামরিক কাজে ব্যবহৃত ইসরায়েলি জঙ্গিবিমান গাজার বেসামরিক ভবনে হামলা চালিয়েছিল এমন কোনো প্রমাণ তিনি দেখতে পাননি। তিনি বলেন, ‘হামলা যদি সমানুপাতিক হারে না হয় , তাহলে সেটা যুদ্ধাপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে।’ ইসরায়েলে নির্বিচারে রকেট হামলার জন্য গাজার সরকার হামাসের সমালোচনাও করেন বাচেলেট।

গত ১০ মে শুরু হওয়া গাজায় ইসরায়েলের ১১ দিনের অভিযানে অন্তত ২৫৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হন। যাদের মধ্যে ৬৬ জনই শিশু। আহত হন ১ হাজার ৯০০ জনেরও বেশি। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

হামাস ইসরায়েলের দিকে কয়কে হাজার রকেট ছোড়ে, যার বেশির ভাগই আয়রন ডোম পদ্ধতি দিয়ে মাঝ আকাশেই ধ্বংস করে দেয় ইসরায়েল। তবে হামাসের হামলায় দুই শিশুসহ ১২ জন নিহত হন।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top